• f
  • t
  • g+

কুমিল্লায় অনলাইনে কোরবানির পশুর হাট

আপলোড : ঢাকা , বুধবার, ২২ জুলাই ২০২০

কুমিল্লা প্রতিদিন :
  • কুমিল্লা ব্যুরো॥
image

কুমিল্লায় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে কোরবানির পশুর হাট নিয়ে ব্যতিক্রম উদ্যোগ গ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন। এ জেলায় প্রতিবছর বৈধ এবং অবৈধ মিলিয়ে সহস্রাধিক পশুর হাট বসে। এবার হাটের সংখ্যা কমিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের আনলাইনে আকৃষ্ট করার চেষ্টা করা হচ্ছে। ‘কুমিল্লা অনলাইন পশুর হাট’ নামে একটি অ্যাপ চালু করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ক্রেতা-বিক্রেতারা মোবাইল ফোনে দেখতে পাবেন লক্ষাধিক গরু। দামে ও পছন্দে মিলে গেলেই ক্রেতার বাড়িতে পৌঁছে যাবে গবাদি পশু।

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এবং জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের সহযোগিতায় অনলাইন পশুরহাটের এ অ্যাপটি খোলা হয়েছে। এ অ্যাপে ইতোমধ্যে ২০ হাজার গরুর ছবি আপলোড করা হয়েছে। আরও লক্ষাধিক গরুর ছবি আপলোড করা হবে বলে জানা গেছে।

জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, একজন ক্রেতা তার মোবাইলের মাধ্যমে ঘরে বসেই লক্ষাধিক গরুর ছবি দেখতে পাবেন এবং সেখান থেকে পছন্দ করতে পারবেন। যেটা বাজারে গিয়ে ঘুরে ঘুরেও সম্ভব নয়। প্রতিটি গরুর জন্যই আলাদা আলাদা মূল্য নির্ধারণ করা আছে। এছাড়া পছন্দের গরুটি দেখতে বিভিন্ন খামার কিংবা ক্রেতার বাড়িতে গিয়েও দরকষাকষি করা যাবে। ছবি দেখে পছন্দের পর বাস্তবে পছন্দেরও সুযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর বলেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণ থেকে মানুষকে রক্ষা করা এবং বাজারে জনসমাগম কমানোর জন্য অনলাইন পশুর হাট চালু করা হয়েছে। এর ফলে আসন্ন ইদুল আজহা উপলক্ষে মানুষকে বাজারে গিয়ে ভিড় করতে হবে না। তিনি বলেন, মানুষের স্বাস্থ্যঝুঁকি এড়াতে আমরা এ অনলাইন প্ল্যাটফরম তৈরি করেছি। সেখান থেকে একটি পশুর বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করে তা বেচাকেনা করা যাবে। কেউ যেন ঝুঁকি নিয়ে বাজারে গিয়ে কোভিডে আক্রান্ত না হয়, তা নিশ্চিত করার জন্য আমরা কুমিল্লা অনলাইন পশুর হাট চালু করেছি। এতে ক্রেতা-বিক্রেতা কারোরই স্বাস্থ্যঝুঁকি থাকবে না। ঘরে বসেই পশুর দরদাম করা যাবে।

গত বছর জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৭০৬ পশুর হাটের ইজারা প্রদান করা হলেও এবার বৈধভাবে ৩৭৮টি হাটের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, অনুমতি দেয়া হাটগুলোয় ইতোমধ্যে বিক্রেতারা পশু তোলা শুরু করলেও ক্রেতাসাধারণের আগমন তেমন একটা চোখে পড়ছে না। অপরদিকে প্রতিবছরের মতো এবারও জেলার বিভিন্ন প্রান্তে অনুমোদনহীন অবৈধ পশুর হাট বসানোর কাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী সিন্ডিকেটগুলো।